এসে গেছে ফেব্রুয়ারি মাস, শুরু হয়ে গেছে বই মেলা। বাঙালির প্রাণের মেলা। বই মেলা থেকে নিশ্চয়ই অনেক বই কিনবেন? আর বইগুলো রাখার জন্য দরকার বুকশেলফ। বুকশেলফের ডিজাইন যদি সুন্দর হয় তাতে বই রাখার কাজ যেমন চলে, একই সাথে ঘরের সৌন্দর্যও বেড়ে যায় অনেক! আবার, কিছু বুক শেলফের ডিজাইন এমনই অভিনব যে বই রাখা, ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধির সাথে সাথে সেগুলো দিয়ে আরও বেশ কিছু কাজ চলে। আসুন, দেখে নেয়া যাক দারুন দারুন ডিজাইনের কিছু বুকশেলফ।

1.amrajaraboipori

১.
প্রচ্ছদের ডিজাইনার বুক শেলফটির (প্রচ্ছদের ছবি) নাম দিয়েছেন ‘শেলভস উইথ এ বেঞ্চ’।

ডিজাইনারের দাবী, বই রাখার জন্য শুধু বুকশেলফ থাকলেই হবে না, তার কাছাকাছি আরামদায়ক একটা জায়গাও থাকা উচিত, যেখানে পাঠকরা শুয়ে বা বসে তার সুবিধামত আরাম করে বই পড়তে পারেন।

2.amrajaraboipori

২.
এবারের বুকশেলফের ডিজাইনার আরও বেশী ক্রিয়েটিভ! তিনি বুকশেলফের ভেতরেই বসার জায়গা করে দিয়েছেন। ফোমে মোড়া জায়গাটিতে শুয়ে, বসে বা হেলান দিয়ে আরাম করে বই পড়া যাবে। বুকসেলটি যথেষ্ট প্রশস্ত হওয়ায় সামনে-পেছনে দু’পাশেই বই রাখার ব্যবস্থা আছে। ডিজাইনারের দেয়া বুক শেলফের নামটাও সুন্দর- The Cave. গুহা।

3.amrajaraboipori

৩.
চীনের ডিজাইনার উন-জি কিম এই ‘মাল্টি-ফাংশনাল’ বুক শেলফটির ডিজাইন করেছেন। শেলফটি ছোট, রাখতে বেশী জায়গা লাগে না। আর দেখতেও বেশ আধুনিক। বই রাখার পাশাপাশি চেয়ার বা টেবিল হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে।

4.amrajaraboipori

৪.
বুক শেলফের এই ডিজাইনটি একেবারেই সরল, কিন্তু অনেক কার্যকর। টেবিলের উপরে দেয়াল বরাবর বইয়ের মাপের কিছু ইস্পাতের পাত পেরেক দিয়ে এঁটে দেয়া হয়েছে। তার উপরে বই রাখার ব্যবস্থা। যে সব ছাত্র টেবিলে বসে নিয়মিত লেখাপড়া করেন তাদের জন্য চমৎকার একটি ডিজাইন।

5.amrajaraboipori

৫.
প্রথম দেখায় যে কেউ চমৎকৃত হবে এবং বেশ কিছুক্ষণ নজর করে দেখবে। মনে হবে, বাক্স দিয়ে কেউ বুঝি ম্যাজিক দেখাচ্ছে। এই বুঝি হুড়মুড় করে সব ভেঙ্গে পড়ল। দেখতে ঠুনকো মনে হলেও শেলফটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যে, অন্য আর দশটা বুক শেলফের মত এটিও যে কোনো ওজনের বই ধারণ করতে সক্ষম।

6.amrajaraboipori

৬.
বুকট্রি! হ্যাঁ, ঘরের দেয়ালে সার বেধে করেকটি বুকট্রি লাগিয়ে দিন (মানে দেয়ালের সাথে এঁটে দিন), আর তার উপর আপনার বইগুলো সাজিয়ে রাখুন। দেখবেন, ঘরের ভেতরেই বসন্তকালের পার্কের আবহ চলে এসেছে! এমনটাই দাবী করেছেন বুকট্রি-র ডিজাইনার কস্টাস।

6.amrajaraboipori 7.amrajaraboipori

৭.
২০০৮ সালে টরেন্টো আন্তর্জাতিক ডিজাইন প্রদর্শনীতে সেরা দশ ডিজাইনের একটি হয়েছিল ‘বুকসিট’ নামের এই বুকশেলফটি। আধুনিক বাসাবাড়িতে যেখানে জায়গার বড্ড অভাবে, সেখানে বুকসিটের মত আসবার অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আর একটা বই পড়তে ভালো না লাগলে আরেকটা বই আনার জন্য আপনাকে বারবার ওঠাও লাগবে না।

8.amrajaraboipori

৮.
বর্তমান সময়ে যে বইগুলো প্রকাশিত হচ্ছে সেগুলো দৈর্ঘ্যে এবং প্রস্থে- দু’দিক থেকেই বিচিত্র। সব বই-ই কি একই রকম তাকে রাখা চলে? সে কথা চিন্তা করেই ডিজাইনার ইভা এবং রবার্টো এমন বুকশেলফের ডিজাইন করেছেন যাতে বিভিন্ন ধরণের বই আর ম্যাগাজিন রাখার জন্য বিভিন্ন ধরণের তাক রয়েছে।

9.amrajaraboipori

৯.
ডিজাইনার ক্লাউডিয়া-র ডিজাইন করা ওয়াই আকৃতির এই বুকশেলফ ঘরের যে কোন জায়গায় সেট করা যাবে। ঘরের কোণে বা দেয়াল ঘেঁষে যেমন সেট করা যাবে, আবার ঠিক ঘরের মাঝেও সেট করা যাবে।

10.amrajaraboipori

১০.
যারা প্রচুর বই পড়েন এবং বই কেনেন, যাদের বাড়ি ভর্তি বই আর বই – তাদের জন্যই এই ‘সিঁড়ি বুকশেলফ’।

তিন দিক থেকে তাক তৈরি করে করে মেঝে থেকে উঠে গেছে একেবারে ছাদ পর্যন্ত। উপরের বইগুলো পাড়ার জন্য বাড়তি মইয়ের প্রয়োজন নেই। কারণ, বুক শেলফের মাঝের দিকের তাকগুলো বাইরের দিকে কিছুটা বেরিয়ে এসে সুন্দর সিঁড়ি তৈরি করেছে। আপনি সিঁড়ি বেয়ে বেয়ে উঠে পছন্দমত বই বাছাই করে নিতে পারবেন।